Breaking News
Home / সোমরস

সোমরস

ঠাকুরবাড়ির ফ্যাশান : জানেন,অভিনব এক জুতো উদ্ভাবন করেছিলেন দেবেন্দ্রনাথ?

পার্থসারথি পাণ্ডা: বঙ্গজীবনে ‘হাল ফ্যাশান’ শব্দটি জায়গা করে নেওয়ার পেছনে জোড়াসাঁকোর ঠাকুর বাড়ির সকলেরই কমবেশি অবদান আছে। এখন বলতে শুরু করেছি দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুরের কথা। তাঁর এ ব্যাপারে উদ্ভাবনী ক্ষমতা ছিল অসাধারণ। উনিশ শতকের মাঝামাঝি। ১৮৪৮ সাল। দেবেন্দ্রনাথ তখন তিরিশ-একত্রিশ বছরের যুবক। বিলেতে মারা গেলেন বাবা দ্বারকানাথ ঠাকুর। ব্যবসাবাণিজ্যে তিনি যেমন …

আরও পড়ুন »

গণতন্ত্রের পঞ্চতন্ত্র

মূল হিন্দি রচনা : শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা   প্রথম তন্ত্র এক ছিল খরগোশ আর এক ছিল কচ্ছপ। দুজনের মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরেই ঠাণ্ডা লড়াই চলছিল।খরগোশ কচ্ছপকে একদিন একইসঙ্গে সংসদ, রাজনৈতিক মঞ্চ ও প্রেসের সামনে একটি লক্ষ্য স্থির করে চ্যালেঞ্জ জানালো যে, যদি ক্ষমতা থাকে তো আমাকে টপকে …

আরও পড়ুন »

বুদ্ধিজীবী

মূল হিন্দি রচনা : শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা ধান্দাবাজ খেঁকশেয়ালটা ঘুরতে ঘুরতে একটা গাছের নীচে হাজির হল। দেখল, ওপরের ডালে অলরেডি একটা কাক মুখে রুটির টুকরো চেপে বসে আছে। খেঁকশেয়াল ভাবলো, কাকটা একবার ভুল করেও যদি মুখ খোলে তাহলে রুটির টুকরোটা নীচে পড়ে যাবে এবং আমি খেয়ে নেব। …

আরও পড়ুন »

উনো ফাইল, দুনো ফসল

মূল হিন্দি রচনা : হরিশঙ্কর পরসাই অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা সরকার ঘোষণা করল, এ বছর যদি আমরা বেশি ফসল উৎপাদন করতে পারি, তাহলে এক বছরের মধ্যেই খাদ্যে আমরা স্বনির্ভর হয়ে যাবো। পরদিনই কাগজের কারখানায় দশ লাখ একর কাগজের অর্ডার দেওয়া হল। কাগজ এসে গেল। তা দিয়ে ফাইলও তৈরি হয়ে গেল। …

আরও পড়ুন »

সমঝোতা

মূল হিন্দি রচনা : হরিশঙ্কর পরসাই অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা যদি দুই সাইকেল সওয়ার রাস্তা দিয়ে সাইকেল নিয়ে আসে, যদি একে অপরের সঙ্গে ধাক্কা লেগে সাইকেল নিয়ে উল্টে পড়ে, তাহলে তারা আগে উঠে ঝগড়া করবে, তারপর গায়ের ধুলো ঝাড়বে। এটা এমনই একটা সুচারু প্রচলিত নিয়ম যে, ঝগড়াটা না হলে জনতা …

আরও পড়ুন »

সাবধান স্টেশন মাস্টার!

মূল হিন্দি রচনা : শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা প্ল্যাটফর্মে লোকেরা বসে আছে। দাঁড়িয়ে আছে, পায়চারিও করছে। তারা মনমরা। একে অপরের সঙ্গে কথাও বলছে না। কেউ কেউ নিজের গোষ্ঠীর মধ্যে সামান্য ফিসফাস করছে বটে, কিন্তু তাকে কি কথা বলা বলা যায়? ট্রেন একটা আসবে। ঘোষণা হয়েছে। কিন্তু যিনি ঘোষণা …

আরও পড়ুন »

একটি রাজনৈতিক পাখির মৃত্যু

মূল হিন্দি রচনা : শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা ছোট্ট পাখিটি একমাত্র বেঁচে রয়েছে শকুনদের দয়াদাক্ষিণ্যে। তাকে মেরে ফেলাটা শকুনদের জন্য কোন কঠিন কাজ না। আর তাছাড়া পাখিটা এখন বেশ ঘায়েল হয়ে রয়েছে, বাঁচার জন্য উড়ে পালাতেও তার উৎসাহ নেই আর, ক্ষমাঘেন্নায় কোন শকুনের কাছে প্রাণভিক্ষা চাওয়ার ইচ্ছেটাও মরে …

আরও পড়ুন »

দেশ কি হাল শুনো দিলওয়ালে

মূল হিন্দি রচনা: শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা দেশটা পড়ে আছে ভুক্তভোগী রোগী হয়ে। যখনই সে লম্বা একটা হাঁফ টেনে ওঠার চেষ্টা করে, তখনই আমরা আশায় বুক বাঁধতে শুরু করি। কিন্তু আশায় ছাই দিয়ে সে আবার ধপাস করে পড়ে যায়। তাকে সুস্থ এবং সচল করে তোলার দায়িত্ব নিয়েছে কিছু …

আরও পড়ুন »

ভোট

মূল হিন্দি রচনা : শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা ভোট এখন ঠিক গণতন্ত্রের দানপাত্রে দেওয়া ভিক্ষা নয়। ভোট এখন এমন এক সুতীক্ষ্ণ ছুরি, যেটা কারও পেটে, কারও পিঠে সমূলে সুযোগ বুঝে ঢুকিয়ে দেওয়া যায়! ভোট এখন এমন এক বীজ, যা থেকে বনস্পতি বা ফলের আশা করাটাই বৃথা। ভোট এমন …

আরও পড়ুন »

মলম-রাজনীতি

মূল হিন্দি রচনা : শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা ঘা-টা এখন স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে। আসলে, সেটা একেবারে দগদগে হয়ে গেছে। আমরা শুধু ভাবি, কারণটা যাই হোক না কেন, যা হবার ছিল, তাই হয়েছে! বিতর্ক এখন ঘা নিয়ে নয়, মলম নিয়ে। ঘায়ে মলম লাগানোটা জরুরি কি না, তাই নিয়ে! এক …

আরও পড়ুন »

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর কিসসা!

মূল রচনা: শরদ জোশী অনুবাদ: পার্থসারথি পাণ্ডা প্রাক্তন এক প্রধানমন্ত্রী, যিনি চিরকাল এরোপ্লেনের উইন্ডো থেকে দেশমাতাকে দেখেছেন, তিনি যখন ট্রেনের কামরায় বসে জানলা দিয়ে জাতিকে দেখেন; তখন কি তাঁর দৃষ্টিকোণ বদলে যায়? তাই– অবশিষ্ট কিছু চামচার সঙ্গে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী স্যুটকেস হোল্ডার নিয়ে ছুটতে ছুটতে স্টেশনে পৌঁছলেন। আর সেখানে পৌঁছেই তিনি …

আরও পড়ুন »

গাঁধীজীর চার নম্বর বাঁদর

মূল হিন্দি রচনা: শরদ জোশী অনুবাদ: পার্থসারথি পাণ্ডা কয়েকজন জবরদস্ত রিপোর্টার একদিন গাঁধীজীর আশ্রমে এলেন। তাঁদের সঙ্গে রয়েছেন জম্পেশ এক ফটোগ্রাফার। আশ্রমে ঢুকেই তাঁরা দেখতে পেলেন গাঁধীজীর তিন বাঁদরকে। পয়লা নম্বরের বাঁদর দু’হাতে তার দুই চোখ ঢেকে নির্বিকার বসে আছে, কারণ, সে পণ করেছে মন্দ কিছুই দেখবে না। দু’নম্বর বাঁদরও …

আরও পড়ুন »

ভোটপার্বণের পঞ্চতন্ত্র

মূল হিন্দি রচনা : শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা এক সেদিন দুম করে নেতাটি গেল মরে। ব্রেনের নার্ভ ফেটে। অনেক বছর ধরেই সে এই এলাকায় দাপিয়ে লিডারি করছিল। তবে এই যে মরে গেল, সেটা কিন্তু তার নিজেরই দোষে। কী দরকার ছিল বাপু তোমার দেশের জন্য এত ভাবার, যাতে কিনা …

আরও পড়ুন »

রাজনীতির আঙনে, শিল্পী আসেন মাগনে

মূল হিন্দি রচনা : শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা যখনই কোন কবি বা শিল্পী রাজ্যসভার সদস্যপদের জন্য মনোনীত হন; তখনই মনে প্রশ্ন ওঠে, তাঁরা সেখানে গিয়ে করবেনটাই বা কি? যাচ্ছেনই বা কেন? কোন উদ্দেশ্যেই বা তাঁকে সেখানে ডেকে জায়গা দেওয়া হচ্ছে? প্রত্যেকবারই এসব প্রশ্ন শুধু প্রশ্ন হয়েই থেকে যায়, …

আরও পড়ুন »

নেতা, গুণ্ডা ও ভারতীয় গণতন্ত্র

মূল হিন্দি রচনা: শরদ জোশী অনুবাদ: পার্থসারথি পাণ্ডা গণ্ডাচারেক গুণ্ডা যিনি পুষতে পারেন, কন্ট্রোলে রাখতে পারেন, তিনিই হলেন সবচেয়ে পাওয়ারফুল রাজনেতা। তাই রাজনৈতিক সভাসমিতিতে বলতে বাধে না যে, গুণ্ডারা এখন তাঁদের কন্ট্রোলে। কখনও কখনও সেটা তাঁরা বেশ ফলাও করেই বলেন। বুঝিয়ে দেন, তাঁরাই গুণ্ডাদের বস। তাঁদের একটা ইশারাতেই যে-কোন সময় …

আরও পড়ুন »

ফালতু খরচ

মূল হিন্দি রচনা : শরদ জোশী অনুবাদ : পার্থসারথি পাণ্ডা আমার তো মনে হয়, অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার ব্রিগেড, স্কুলবাসের মতো কিছু জরুরি পরিষেবা ছাড়া আর যেসব সরকারী যানবাহন আছে, সব ঝেড়েঝুড়ে বেচে দেওয়া উচিত। জরুরি মনে হলে থানা আর বনদপ্তরকেও না হয় কয়েকটা করে জিপ দেওয়া যেতে পারে। ঠাঁটবাট বজায় রাখতে …

আরও পড়ুন »