Breaking News
Home / TRENDING / প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল, ভবানীপুরে বঙ্গ বিজেপির আত্মঘাতী বোমা

প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল, ভবানীপুরে বঙ্গ বিজেপির আত্মঘাতী বোমা

সুমন ভট্টাচার্য

যে কোনও যুদ্ধে ন্যারেটিভ বা স্লোগান ঠিক করার একটা গুরুত্ব থাকে|

আপনি যদি যুদ্ধে জিতে যান, তাহলে সেই ন্যারেটিভ বৈধতা পেয়ে যায়|

স্লোগান আপনার পরবর্তী রাজনৈতিক ইনিংসের থিম সং হয়ে দাঁড়ায়| ভারতীয় রাজনীতিতে এর অসংখ্য উদাহরণ আছে| ইন্দিরা গান্ধীর গরিবি হটাও থেকে নরেন্দ্র মোদীর আব কি বার, মোদী সরকার| নরেন্দ্র মোদী যে এখনও অপ্রতিরোধ্য, ব্যক্তিগত ক্যারিশমায় তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বীদের থেকে অনেক এগিয়ে সেটা আসলে ওই স্লোগানকে রাজনীতিতে অনুসরণ করে| গত ৭ বছর ধরে ভারতে যে সরকার চলছে সেটা আসলে বিজেপির সরকার নয়, আরএসএস এর সরকার নয়, অমিত শাহ সেই সরকারের নিছকই ম্যানেজার মাত্র, আসলে এটা মোদীর সরকার| এটাই একটা স্লোগানের বা ন্যারেটিভ এর গুরুত্ব, যা পরবর্তী বছরগুলির রাজনীতিকে নির্ধারণ করে দেয়|

সমস্যা হচ্ছে, অন্তত আমার চোখে, পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে বিজেপি এই ন্যারেটিভ বা স্লোগান তৈরির ক্ষেত্রে বারবার ভুল পথে হেঁটেছে, যা আদতে তৃণমূলের সুবিধা করে দিয়েছে| বিশেষ করে এই বছরের জানুয়ারি থেকে ভবানীপুরের উপনির্বাচন পর্যন্ত গেরুয়া শিবিরের সমস্ত ন্যারেটিভ বা স্লোগানই আসলে আত্মঘাতী বা হারাকিরির সমতুল্য| মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল কে দাঁড় করিয়ে বিজেপি রাজ্য নেতৃত্ব, এমনকি খোদ রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ পর্যন্ত বলে দিয়েছেন, আইনজীবী মহিলা আসলে রাজ্যে রাজনৈতিক হিংসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদী মুখ| অর্থাৎ, গেরুয়া শিবির বলছে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যদি অপশাসন বা রাজনৈতিক প্রতিহিংসার প্রতীক হন, তাহলে প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল তাঁর প্রতিস্পর্ধী প্রতিবাদের মুখ|

মানে কী?

তাহলে কি ভবানীপুরের উপনির্বাচন রাজ্যে রাজনৈতিক হিংসার ইস্যুতে ভোট?

যদি তাই হয়, তাহলে তো প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের পরাজয়ের অর্থ বিজেপির এত যত্নে তৈরি করা ভোট পরবর্তী রাজনৈতিক হিংসার তত্বকে ভবানীপুর প্রত্যাখ্যান করল? তাহলে কার সুবিধে? বিজেপির না তৃণমূলের?

এই সব হারাকিরি দেখলে মনে হতে পারে বিজেপির আরও অনেক স্ট্র্যাটেজিস্ট বা কৌশল রচয়িতাই বোধহয়, আসলে ভবিষ্যতে ঘাসফুলের শিবিরে যাবেন বলে আত্মঘাতী কৌশল তৈরি করছেন? আইএস খোরেসানের ধাঁচে না হলে এই ধরনের আত্মঘাতী বোমা কেউ ভবানীপুরের জন্য রেখে আসে?

যে নির্বাচনে পরাজয় অবশ্যম্ভাবী, সেই ভোটকে নিজেদের তৈরি করা ইস্যুর সমর্থনে গণভোট বা যে প্রার্থী আসলে হারার হ্যাটট্রিক করতে চলেছেন, সেই প্রার্থীকে প্রতিবাদের আইকন হিসাবে কোন আহাম্মক তুলে ধরতে চায়? সব দেখেশুনে মনে হতেই পারে গেরুয়া শিবির কি তাহলে আরও রাহুল সিনহা তৈরিতে মন দিয়েছে, লোকসভা থেকে স্কুলের পরিচালন সমিতির ভোটে পর্যন্ত হারাই যাঁরা অনুশীলন করে যাবেন?

জুন আন্টি পরকীয়ায়, শতরুপ ঘোষ টেলিভিশন ডিবেটে আর প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালরা হল্লা করতেই সফল, এটা কি বাংলার বিরোধী রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃত্ব বোঝেন না? না কি বুঝেও তাঁরা ‘একি মায়ায় জড়ালে গো বন্ধু’ গাইতে গাইতে হারার নেট প্র্যাকটিস বা টি২০ খেলে যাবেন?

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির রণকৌশল দেখলে মনে হয় সাম্প্রদায়িকতায় সুড়সুড়ি আর হারার প্র্যাকটিস করাই তাঁদের লক্ষ্য| সেই জন্যই ‘ভবানীপুরকে খিদিরপুর হতে দেবেন না’-র মতো বিভাজনকারী স্লোগান তুলে আরও একবার নিজেদেরকে ব্যাকফুটে ঠেলে দেওয়ার মতো হিট উইকেট কেন কেউ করবে? যে রাজ্যের জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশই মুসলিম, সেই রাজ্যে সাম্প্রদায়িক সুড়সুড়ি কতটা কাজে দেবে, একবার আত্মসমীক্ষা হবে না?

ওই জন্যই বললাম না এই রাজ্যে বিজেপির ন্যারেটিভ বা স্লোগান আসলেই ভুলভাল, তৃণমূলকে এগিয়ে দেয়| বিধানসভা নির্বাচনের সময় যখন প্রশান্ত কিশোর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য বাংলা নিজের মেয়েকেই চায় এর মতো দুরন্ত স্লোগান দিয়েছেন, তখন গেরুয়া শিবির প্রতিস্পর্ধী হিসাবে যাঁদের তুলে ধরেছে, সেই মিঠুন চক্রবর্তী, স্বপন দাশগুপ্ত বা অনির্বাণ গাঙ্গুলীর সঙ্গে বাঙালির কোনো দূরতম যোগাযোগ নেই| ভোটার বা আমজনতার আস্থাভাজন হয়ে ওঠা তো অনেক দূরের বিষয়| এই যে ভুল পথে হাঁটা, আত্মঘাতী ন্যারেটিভ তৈরি করা, বঙ্গ বিজেপির তার থেকে কোনও বিরাম নেই|

ভবানীপুর বিধানসভার উপনির্বাচন আরেকবার তার প্রমাণ হতে চলেছে|

Spread the love

Check Also

সনিয়ায় ফিরল কংগ্রেস, কংগ্রেসে কি ফিরবে স্বমহিমায়? প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলে

চ্যানেল হিন্দুস্তান ব্যুরো। সনিয়ার নিজেকে পূর্ণ সময়ের সভাপতি ঘোষণা করা। কিংবা রাহুলের সভাপতি পদে ফের …

বৈশাখীকে সিঁদুর পরিয়ে আইনি ঝামেলায় জড়াতে পারেন শোভন, ইঙ্গিত স্ত্রী-পুত্রের মন্তব্যে

চ্যানেল হিন্দুস্তান ব্যুরো। বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সিঁদুর পরিয়ে আইনি ঝামেলায় জড়াতে পারেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। দশমীর …

কিং খানকে তো দিদি নিজের স্বার্থে ব্যবহার করেছেন, আজ কেন চুপ হয়ে গেলেন? অধীর চৌধুরী

চ্যানেল হিন্দুস্তান ব্যুরো। বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের পুত্র আরিয়ান খানের গ্রেপ্তারি নিয়ে কেন চুপ পশ্চিমবঙ্গের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!